২৬শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১১ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • শিক্ষা
  • নড়াইলে খোলা আকাশের নিচে চলছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ও নারিকেল গাছের নিচে ক্লাস

নড়াইলে খোলা আকাশের নিচে চলছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ও নারিকেল গাছের নিচে ক্লাস

হুমায়ন আরাফাত, আশুলিয়া করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : জুন ০৫ ২০১৭, ১৯:৪৪ | 645 বার পঠিত

উজ্জ্বল রায় নড়াইল জেলা প্রতিনিধি :

নড়াইলে খোলা আকাশের নিচে চলছে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম। কালবৈশাখী ঝড়ে ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় বাধ্য হয়ে খোলা আকাশের নিচে ক্লাস করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এতে বিপাকে পড়েছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। তবে দ্রুত শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনার কথা জানিয়েছেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা। খোলা আকাশের নিচে চলছে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পাঠদান কর্মসূচি। বিস্তারিত আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের রিপোর্টে, কালবৈশাখী ঝড়ে বিধ্বস্ত হয় নড়াইলের কালিয়া উপজেলার দক্ষিণ জামরিলডাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন। এরপর থেকে খোলা আকাশের নিচে চেয়ার-টেবিল ও বেঞ্চ সাজিয়ে চলছে কমলমতি শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম। বিদ্যালয়ের আঙিনা দখল করেছে কৃষকের খড় কুটো। নেই কোনো খেলার মাঠ। এ অবস্থায় ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ। বিষয়টি স্বীকার করে দ্রুত বিদ্যালয়ের শিক্ষা পরিবেশ নিশ্চিত করার কথা জানালেন নড়াইল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মুহম্মদ শাহ আলম। দক্ষিণ জামরিলডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী লেখাপড়া করছে।কালবৈশাখী ঝড়ে বিধ্বস্ত নড়াইলের জেলার সাতটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠদান চলছে দোকানঘরে ও গাছতলায়। অনুকুল পরিবেশ না থাকায় ও প্রচন্ড খরতাপে ওই সব বিদ্যালয়ের দুই হাজারেরও বেশী শিক্ষার্থীরা অসুস্থতাসহ নানা বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে। যে। মেঘ দেখলেই বৃষ্টির পানিতে ভেজা ও ঝড়ের ভয়ে শিক্ষার্থীদের আগাম ছুটি দিতে শিক্ষকরা বাধ্য হচ্ছেন । স্ব-স্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটির সদস্যরা এর সত্যতা স্বীকার করেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ২৩ এপ্রিল বয়ে যাওয়া কালবৈশাখী ঝড়ে নড়াইলের কালিয়া উপজেলার বুড়িখালী, যাদবপুর পূর্বপাড়া ও দক্ষিণ জামরিলডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। মাউলী নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়,সাতবাড়িয়া,পূর্ব পেড়লি ও পশ্চিম পেড়লি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের টিনের চালা উড়ে গেছে। যে কারণে ওই সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় দুই সহস্রাধিক কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,পেড়লী ইউনিয়নের দক্ষিণ জামরিলডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের টিনসেডটি ঝড়ে বিধ্বস্ত হওয়ায় এখন পাটদান চলছে বিদ্যালয়ের সামনের নারিকেল গাছ তলায়। একই চিত্র পার্শ্ববর্তী পুরুলিয়া ইউনিয়নের বুড়িখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়টিতে কোন ভবন নির্মাণ না হওয়ায় পুরাতন টিনসেডের ঘরেই ক্লাস নেয়া হতো। কিন্তু কালবৈশাখী ঝড়ে পুরোপুরি বিধ্বস্ত হওয়ায় বিদ্যালয় থেকে ৩০০ গজ দূরে রাস্তার পাশের একটি দোকান ঘরের মধ্যে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেওয়া হচ্ছে। রাস্তায় যানবাহনের হর্ণ, বাজারের কোলাহলসহ নানা প্রতিকুলতার কারণে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছে। পাঁচগ্রাম ইউনিয়নের যাদবপুর পূর্বপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি কালবৈশাখী ঝড়ে উড়ে যাওয়ায় সেখানেও শিক্ষার্থীদের পাঠদান দেওয়ার কোন পরিবেশ নেই। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিকল্পভাবে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা পাঠদান চালুর রাখার চেষ্টা করছেন।এছাড়া মাউলী নি¤œ মাধ্যমিক বিদ্যালয়,সাতবাড়িয়া,পূর্ব পেড়লি ও পশ্চিম পেড়লি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের টিনের চালা উড়ে যাওয়ায় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদান মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে। দক্ষিণ জামরিলডাঙ্গা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা প্রজ্ঞা পারমিতা বিশ্বাস বলেন, ‘প্রচন্ড রোদে বাইরে ক্লাস নেয়ার কারণে শিক্ষার্থীরা প্রায়ই অসুস্থ্য হয়ে পড়ছে। তাছাড়া নারিকেল গাছের নিচে ক্লাস নেওয়াটাও অনেকটা ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে এখন ভয় পাচ্ছেন। দুই শতাধিক ছাত্রছাত্রী নিয়ে বেকায়দায় পড়েছি।’পাঁচগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান বলেন, ‘ভেঙ্গে যাওয়া বিদ্যালয়টি স্থাপনের জন্য ম্যানেজিং কমিটি ও অভিভাবকদের সাথে আলোচনা চলছে। দ্রুত একটি সমাধানে পৌছেতে পারবো।’নড়াইলের কালিয়া উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার শেখর কুমার মিত্র বলেন,‘ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাঠদান চালু রাখতে স্থানীয়ভাবে যথাযত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি মেরামতসহ ভবন নির্মাণের ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে।

 

 

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4204073আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 2এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET