২২শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-

২৫০ কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে উত্তেজনা র‌্যাব-পুলিশ চেয়ে চিঠি

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : জুন ০৯ ২০১৬, ০৪:১৬ | 624 বার পঠিত

17646_ssনয়া আলো ডেস্ক- শিক্ষাভবনে প্রায় ২৫০ কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। ওপেন টেন্ডারিং মেথড ওটিএম বা উন্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতির এ টেন্ডারকে ঘিরে যেকোনো ধরনের সংঘাত এড়াতে অতিরিক্ত সশস্ত্র পুলিশ ও র‌্যাব চাওয়া হয়েছে। সম্প্রতি শিক্ষা ভবনের টেন্ডার নিয়ে ছাত্রলীগ-যুবলীগের মধ্যে কয়েক দফা সংঘর্ষের পর এ নিরাপত্তা চাওয়া হলো। এ টেন্ডারকে কেন্দ্র করে শিক্ষাভবনে ছাত্রলীগ, যুবলীগের কয়েকটি গ্রুপকে পাল্টাপাল্টি মহড়া দিতে দেখা গেছে। এ সময় ব্যাপক উত্তেজনার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। শিক্ষাভবনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আশঙ্কা, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে যে কোনো সময় বড় ধরনের সংঘর্ষ বেধে যেতে পারে। কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, গতকাল দুপুর ১২টার পরে শতাধিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী শিক্ষাভবনে মহড়া দেন। তারা ভবনের পিছনের বিল্ডিং ৬ষ্ঠ তলা সেসিপের সামনে কিছুক্ষণ অবস্থান নেন। পরে শিক্ষাভবন ক্যাম্পাস ঘুরে আরেক গেট দিয়ে বেরিয়ে যান। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আজ দুপুর আড়াইটায় শিক্ষা ভবনের পিছনে বিল্ডিং ৬ষ্ঠ তলা সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইমপ্রুপমেন্ট প্রোগ্রাম (সেসিপ) ২৫০ কোটি টাকার টেন্ডার হওয়ার কথা রয়েছে। সারা দেশের ১০ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ত্রুয়ের জন্য এ আন্তর্জাতিক টেন্ডারে অংশ নিয়েছে কয়েকটি দেশের প্রায় অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠান। সেসিপ প্রকল্পের বড় এই কাজ পেতে আন্তর্জাতিক কয়েকটি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা দিলেও পছন্দের প্রতিষ্ঠানকে কাজ পাইয়ে দিতে লবিং শুরু হয়েছে। এর আগেও আন্তর্জাতিক দরপত্রে তেমন ঝামেলা না হলেও এবার সেটি সংঘর্ষে রূপ নিতে পারে- এমন আশষ্কা করেছেন প্রজেক্ট সংশ্লিষ্টরা। এজন্য গত মঙ্গলবার সেসিপ অফিসের শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে অতিরিক্ত পুলিশ (সশস্ত্র) ও র‌্যাব চেয়ে চিঠি দিয়েছেন প্রকল্পের উপপরিচালক (প্রশাসন)। চিঠিতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটায় বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ত্রুয়ের জন্য আদায়কৃত আন্তর্জাতিক দরপত্র (আইসিবি) প্রাপ্ত দরপত্রগুলো খোলা হবে। এ সময় অফিসের শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে সকাল ৯টা থেকে সেসিপ কার্যালয় ৬ষ্ঠ তলায় পর্যাপ্ত সংখ্যাক র‌্যাব ও সশস্ত্র পুলিশ মোতায়েন করা দরকার।
সেসিপের সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আন্তর্জাতিক দরপত্রে সাধারণত কখনও ঝামেলা হয় না। কারণ, দরপত্রের চাহিদা অনুযায়ী ৪৭টি দেশের প্রতিষ্ঠানগুলো এতে অংশগ্রহণ করে। এসব দেশের প্রতিষ্ঠানের এজেন্ট হিসেবে বাংলাদেশে যারা কাজ করেন তারাই ঝামেলায় পাকাতে পারেন এমন শষ্কা করেছেন তারা। এজন্য অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব চাওয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে সেসিপের প্রকল্প পরিচালক রতন কুমার রায় বলেন, সব টেন্ডারে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে পুলিশ র‌্যাব চাওয়া হয়। আমরাও চেয়েছি। তিনি জানান, এটি আন্তর্জাতিক টেন্ডার এখানে কোনো ঝামেলা হওয়ার কথা নয়। তারপরও অতিরিক্ত সতর্কতার জন্য পুলিশ-র‌্যাব চাওয়া হয়েছে।
শিক্ষাভবনের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রে বলছে, বিশ্বব্যাংক ও এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংকের অর্থায়নে পরিচালিত শিক্ষার বিভিন্ন প্রকল্পগুলো নিয়ে লুটপাটের অভিযোগ রয়েছে। দাতা সংস্থাগুলো শর্ত অনুযায়ী এই প্রকল্পগুলোর বিভিন্ন কেনাকাটায় আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করা হয়। এরই অংশ হিসেবে সেসিপের সারা দেশে ১০ হাজার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি কেনাকাটার জন্য আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বান করেছে। অভিযোগ উঠেছে, প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা আগে থেকেই কমিশন খেয়ে পছন্দের প্রতিষ্ঠানকে কাজ পেয়ে দেয়ার। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে ছাত্রলীগ, যুবলীগের একটি অংশ। এজন্য এবার এই আন্তর্জাতিক দরপত্রকে ঘিরে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে।
এর আগে গত এপ্রিলের ১১ তারিখ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণে ছয়টি ফেজে প্রায় ১০০ কোটি টাকার টেন্ডার নিয়ে শিক্ষা ভবনে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের তিনটি পক্ষের সংঘর্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন। ভাঙচুর করা হয়েছে শিক্ষা ভবনের কয়েকটি দরজা-জানালার কাচসহ ১৫টি মোটরসাইকেল।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4151268আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET