২৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-

সিদ্দিকুরের হাতেই থাকছে লাল-সবুজ পতাকা

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : জুলাই ১৪ ২০১৬, ০৪:১৭ | 650 বার পঠিত

22436_s1 স্পোর্টস ডেস্ক- আগামী ৫ই অগাস্ট ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোতে শুরু হবে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ খ্যাত অলিম্পিক গেমসের এবারকার আসর। হাজার বছরের পুরনো এই ক্রীড়া আসরে বিশ্বের সেরা সব অ্যাথলেট প্রতীক্ষায় থাকেন নিজেদের পারফরম্যান্স প্রদর্শন করে পদক জয় করার। এরা অলিম্পিকে অংশ নিয়ে থাকেন যোগ্যতার মাপকাঠিতে। আর আমাদের দেশের প্রতিযোগীরা অপেক্ষায় থাকেন ওয়াইল্ড কার্ডের। এটা অনেকটা অলিম্পিক কর্তৃপক্ষের দানের ন্যায়। এবারও ওয়াইর্ল্ড কার্ড নিয়ে অলিম্পিকে যাচ্ছেন বাকী, সাগর, টুম্পা, শ্যামলীরা। সম্ভাবনা রয়েছে স্প্রিন্টার মেজবাউদ্দিনের। এদের বাইরে ব্যতিক্রম কেবল সিদ্দিকুর রহমান। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে যোগ্যতার ভিত্তিতে তিনি যাচ্ছেন রিও অলিম্পিকে। ইতিহাস গড়ার পুরস্কারও সিদ্দিক পাচ্ছেন হাতে নাতে। এবার ব্রাজিল অলিম্পিক গেমসের মার্চপাস্টে বাংলাদেশ দলের পতাকা বহনের দায়িত্ব পাচ্ছেন এই গলফার। গতকাল বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) এক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এই তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে ১৯৮৪ সালে লস অ্যাঞ্জেলস গেমসে অ্যাথলেট সাইদুর রহমান ডন, ১৯৮৮ সালে সিউলে অ্যাথলেট শাহ্‌ আলম বাংলাদেশের পতাকা বহন করেন। তারপর চার আসরে গেমসের পতাকা বহনের কৃতিত্ব পান শুটাররা। ১৯৯২ সালে বার্সেলোনায় শুটার কাজী শাহানা পারভীন, ১৯৯৬ সালে আটলান্টায় শুটার সাইফুল আলম রিংকি, ২০০০ সালে সিডনিতে শুটার সাবরিনা সুলতানা, ২০০৪ সালে শুটার আসিফ হোসেন খান বাংলাদেশের পতাকা বহন করেন। ২০০৮ সালে সাঁতারু রুবেল রানা এবং সর্বশেষ ২০১২ সালে আরেক সাঁতারু মাহফিজুর রহমান সাগরের হাতে লাল-সবুজের পতাকা তুলে দেয়া হয়।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4163808আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 9এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET