১লা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৫ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • রামগঞ্জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে নবম শ্রেনীর দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ॥

রামগঞ্জে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে নবম শ্রেনীর দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ॥

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : জুলাই ৩০ ২০১৭, ১৮:৩৭ | 638 বার পঠিত

রামগঞ্জ (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি –
রামগঞ্জ এম ইউ সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের পার্ট টাইম শিক্ষক মাহামুদুন্নবী শাওনের বিরুদ্ধে স্কুলের নবম শ্রেনীর দুই শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারধরের ফলে শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলামের মাথা রাসেলের কান ফেটে গেলে তাদেরকে রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ঘটনাটি ঘটছে গতকাল শনিবার দুপুরে স্কুল চলাকালীন সময়ে।
আহত শিক্ষার্থী ও অভিভাবক আবদুর রহিম জানান, শনিবার স্কুলের তৃতীয় বিষয়ের ক্লাশ চলাকালীন সময়ে বিদ্যালয়ের পার্ট-টাইম শিক্ষক কোন কারন ছাড়াই নবম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলাম ও রাসেলকে ক্লাশের ভিতরে হট্টগোল করার অভিযোগে চড়থাপ্পড় মারতে থাকে। শিক্ষকের এলোপাতাড়ি মারধরে শিক্ষার্থী সাইফুল ইসলামের মাথা ফেটে যায় এবং রাসেলের কান ফেটে যায়। খবর পেয়ে আত্মীয়স্বজনরা সাইফুল ইসলামকে উদ্ধার করে রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে বিষয়টি অবহিত করেন।
বিদ্যালয়ের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী অভিযোগ করেন, শিক্ষক মাহামুদুন্নবী শাওন রামগঞ্জ কে এম ইউনাইটেড একাডেমী, রামগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ও রামগঞ্জ রেসিডেন্সিয়াল স্কুলে চাকরী করতে গিয়ে সেখানে জামায়াত শিবিরের বিভিন্ন বই বিক্রয়সহ শিবিরের বিভিন্ন কার্যক্রম চালাতো। স্কুল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানতে পেরে তাকে প্রত্যেকটি বিদ্যালয় থেকে চাকরি বের করে দেয়। পরে সে রামগঞ্জ সাবরেজিষ্ট্রি অফিস সংলগ্ন একটি ভবনে ফারহা এডুকেশন সেন্টার নাম দিয়ে কোচিং সেন্টার খোলেন। সেখানেও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে বলেও জানান স্থানীয় লোকজন। চলতি বছরের ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের দিন উক্ত শিক্ষক কোচিং সেন্টারে জাতীয় পতাকা না উঠানোর কারনে রামগঞ্জ থানা পুলিশের এস আই ফারুক আহম্মেদ তাকে আটক করে।
অভিযুক্ত শিক্ষক মাহামুদুন্নবী শাওন জানান, শ্রেনীকক্ষে ইসমাইল হোসেন রাসেল হট্টগোল ও হাতাহাতি করলে আমি তাদেরকে জিজ্ঞাসা করতে যাই। এসময় তারা আমাকে চোখ রাঙ্গিয়ে বলে আপনার সমস্যা কি? একথা বললে আমি সাইফুল ইসলামকে থাপ্পড় দেয়ার চেষ্টা করলে সে গেইটের লোহার গ্রীলের উপর পড়ে কপাল ফেটে যায়। এলোপাতাড়ি মারধরের ঘটনা সত্য নয়। তিনি আরো জানান, কিছু লোক চায় না আমি কোচিং সেন্টার চালাই।
বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আজিজুর রহমান জানান, বিষয়টি দুঃখজনক। আমি তাদেরকে দেখতে হসপিটাল গিয়েছি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়কে বিষয়টি অবহিত করেছি।
রামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু ইউসূফ জানান, আমি বিষয়টি জানতে পেরেছি। এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে, প্রয়োজনে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আমি ফ্রি হয়ে স্কুলে যাবো।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4216467আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 14এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET