২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার, ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • পাঁচ মিশালী
  • রাজশাহীর বাজারে হরেক সুমিষ্ট রসালো ফলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গোপালভোগ আম।

রাজশাহীর বাজারে হরেক সুমিষ্ট রসালো ফলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গোপালভোগ আম।

হুমায়ন আরাফাত, আশুলিয়া করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : মে ১৮ ২০১৭, ২১:৩৫ | 726 বার পঠিত

নাজিম হাসান,রাজশাহী :

রাজশাহীর বাজারে হরেক সুমিষ্ট রসালো ফলের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে গোপালভোগ আম। দাম বেশী হলেও আগাম জাতের আম শোভা পাচ্ছে মৌসুমী ব্যবসায়ীর ফলের পাশরায়। রাজশাহীতে এবার আম পাড়ার তেমন সময়সীমা না থাকায় এরইমধ্যে গুটি ও গোপালভোগ উঠেছে বাজারে। আর এক সপ্তাহ ধরে বিক্রি শুরু হয়েছে রসালো ফল লিচুর। ব্যাপক হারে এখনো আমের সমারোহ না ঘটলেও ব্যবসায়ীরা অল্প পরিসরে বিক্রি শুরু করেছেন পাকা গোপালভোগ। তারা বলছেন আর এক সপ্তাহের মধ্যে আম সমৃদ্ধ রাজশাহীর বাজারে কারবার শুরু হবে হরেক স্বাদের আম বাণিজ্য। রাজশাহী নগরীর বিভিন্ন বাজারে দেখা মেলেছে গুটি ও পোপালভোগ জাতের আম। এসব আমের মধ্যে গুটি আমের সংখ্যাই বেশি। তবে অল্প পরিমাণে সুমিষ্টি গোপাল ভোগের দেখা পাওয়া যাচ্ছে। ইতোমধ্যে রাজশাহীর আশেপাশের বাজারগুলোতে ঢাকা, চট্টগ্রাম এলাকা থেকে শুরু করে বিভিন্ন এলাকার আম ব্যবসায়ীরা ভিড় জমাতে শুরু করেছেন। শুধু আম ও লিচুই নয়, বাজারে এখন হরেক ফলের সমারোহ। জামরুল, সফেদা, তরমুজ, বাঙ্গি, লালিম, বেল সবধরনের ফল এখন শোভা পাচ্ছে ফলের দোকানগুলোয়। আম লিচুসহ মধুমাসের রসে ভরা জ্যৈষ্ঠের হরেক ফল এখন বাজারে মিললেও শুরুকেই দাম আকাশ ছোঁয়া। দেশী গুটি জাতের আম হলেও বাজারে নতুন আসায় দাম বেশ চড়া। রাজশাহী নগরীর সাহেব বাজারে উঠা প্রথম গোপালভোগ বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৩০ টাকা কেজি দরে। তবে আগামী সপ্তাহে পুরোপুরি আম উঠলে দাম কিছুটা কমতে পারে বলে জানান ব্যবসায়ীরা। এদিকে এখনো বড় আকারের বোম্বাই জাতের লিচু না উঠলেও দেশি লিচুর সমারোহে বাজার সরগরম। রাজশাহীর বাজারে এখন প্রতি একশ লিচু বিক্রি হচ্ছে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত। গতকার বড় আমের মোকাম পুঠিয়ার বানেম্বর বাজারের দেখা মিলেছে আমের। এদিকে রাজশাহীর পথের পাশেই সারি সারি আমগাছে ক্রমেই পাক ধরছে আমে। রাজশাহীর সুস্বাদু মিষ্টি আমের কথা উঠলেই প্রথমে আসে বাঘা ও চারঘাটের নাম। মনিগ্রামের পুরনো আমচাষি ও ব্যবসায়ী জিল্লুর রহমান জানান, এ বছর ২০ বিঘা জমিতে আমের বাগান রয়েছে তার। এছাড়া গ্রামের বিভিন্ন স্থানে আরো ১৭শ’ আম গাছ কিনে রেখেছেন। তিনি বলেন এবার কয়েক দফা ঝড়ে আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। চারঘাটের আম চাষিরা জানান, বাজারে পুরোদমে আম উঠতে এখনো সপ্তাহ খানেক লাগবে। পাকা আম পেতে আরো এক সপ্তাহ অপেক্ষা করতে হবে। তবে অনেকে গাছ থেকে আগাম জাতের কিছু আম এরইমধ্যে পেড়ে খুচরা বাজারে বিক্রি করছেন। বিশেষ করে গুটি ও গোপালভোগ জাতের আম স্বল্প পরিসরে উঠতে শুরু করেছে।রাজশাহীর ব্যবসায়ীরা জানান, এ বছর মার্চ মাসের শেষে এবং এপ্রিলের শুরুতে এই অঞ্চলে হালকা বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে আমবাগানে সেচের কাজটি প্রাকৃতিকভাবেই হয়ে গেছে। বাড়তি সেচের প্রয়োজন পড়েনি। আমের পরিস্থিতি খুব ভালো ছিলো। তবে মে মাসেই কয়েক দফা ঝড়ে আমের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠা কষ্টসাধ্য। আমের কাঙ্খিত দাম না পেলে চাষিরা সুবিধা করতে পারবেন না এবার। এ কারনে বাজারে এবার আমের দাম বৃদ্ধি পেতে পারে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4217962আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 18এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET