২৭শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার, ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-

মানিকগঞ্জে দুইটি ইউনিয়নে নির্বাচন স্থগিত

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : মে ১১ ২০১৬, ০০:৪৩ | 655 বার পঠিত

পঞ্চম দফায় মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার গড়পাড়া ও জাগীর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে।

আর ঢাকার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ছারোয়ার মিহির মোর্শেদকে এই ঘটনা তদন্ত করে আগামী রবিবার প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

গতকাল সোমবার নির্বাচন কমিশন উপ-সচিব ফরহাদ আহম্মদ খান স্বাক্ষরিত এই স্থগিতাদেশের চিঠি মানিকগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট রিটার্নি কর্মকর্তার কাছে এসেছে বলে জানিয়েছেন ওই কর্মকর্তারা।

তবে, কে বা কারা কিংবা কি অভিযোগে এই নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। তা চিঠিতে উল্লেখ ও এই কর্মকর্তাদের জানানো হয়নি।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে জানা যায়, পঞ্চম দফায় তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৮ মে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হবে। এ জন্য গত ২২ এপ্রিল থেকে মনোনয়নপত্র বিতরণ করা হয়।

এতে গড়পাড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত আফসার উদ্দিন সরকার, বিএনপি মনোনীত মো. সহিম উদ্দিন এবং স্বতন্ত্র মো. ওসমান গণি, মো. সোরহাব উদ্দিন ও নরুল ইসলাম মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

আর জাগীর ইউনিয়নে একই পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মো. জাকির হোসেন, বিএনপি মনোনীত মো. সেলিম হোসেন ও স্বতন্ত্র মো. আইয়ুব আলী।

কিন্তু, শেষদিনে গত ৩ মে গড়পাড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত আফসার উদ্দিন সরকার ও জাগীর ইউনিয়নে মো. জাকির হোসেন মনোনয়নপত্র জমা দেন। আর দুইটি ইউনিয়নে অন্য ছয় প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেননি।

আগামী বৃহস্পতিবার নিজেদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করলে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হবেন আওয়ামী লীগের ওই দুই প্রার্থী।

এর আগে গত ২৭ এপ্রিল সদরের ১০টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমায় বাধা দেয়া। চেয়ারম্যান পদে বিএনপি মনোনীত দিঘী ইউনিয়নে মো. মতিউর রহমান ও কৃষ্ণপুর ইউনিয়নে হাজী মো. আদম আলী মনোনয়নপত্র ছিড়ে ফেলে মারপিট ও আটকে রেখে প্রাণনাশসহ বিভিন্ন হুমকি-দামকি দেয়া হয়।

আর আওয়ামী লীগ প্রার্থী ছাড়া অন্য কেউ এই নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না বলে প্রার্থীদের প্রকাশ্যে হুমকি-দামকি দেন ওই কর্মকাণ্ডে জড়িতরা।

এসব ঘটনায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার, সচিব, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে লিখিতভাবে পৃথক অভিযোগ করেন জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক এসএ জিন্নাহ কবীর ও ভূক্তভোগী দুই প্রার্থী।

এরপর শেষদিনে আটটি ইউনিয়নে মনোনয়নপত্র জমা দেন প্রার্থীরা। গড়পাড়া ও জাগীর ইউনিয়নে শুধু মনোনয়নপত্র জমা দেন আওয়ামলী লীগ মনোনীত দুই প্রার্থী।

এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মুনীর হোসাইন খান জানান, গড়পাড়া ও জাগীর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের স্থগিতের চিঠি দিয়েছেন ওই নির্বাচন উপ-সচিব। এ কারণে নির্বাচনের সকল কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়েছে।

কে বা কারা কিংবা কি অভিযোগে এই নির্বাচন স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন, তা চিঠিতে উল্লেখ ও জানানো হয়নি।

আগামী বৃহস্পতিবার এখানে আসবেন তদন্ত কর্মকর্তা। তদন্ত শেষে প্রতিবেদন জমার পর নির্বাচন কমিশনের পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4161522আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 10এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET