২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১০ই সফর, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-

মানববন্ধন ঠেকাতে গিয়ে উত্তেজিত ওসি চড় মারলেন এএসআইকে

নয়া আলো অনলাইন ডেস্ক।

আপডেট টাইম : আগস্ট ০৯ ২০২০, ১৮:১৪ | 649 বার পঠিত

শাহেদুল ইসলাম সিফাতের মুক্তির দাবিতে বরগুনার বামনা উপজেলায় আয়োজিত মানববন্ধনের মধ্যেই পুলিশের এএসআইকে চড় মারেন বামনা থানার ওসি মো. ইলিয়াস হোসেন।

কক্সবাজারে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদের মৃত্যুর ঘটনার পর গ্রেপ্তার হওয়া শাহেদুল ইসলাম সিফাতের মুক্তির দাবিতে বরগুনায় গতকাল শনিবার হওয়া মানববন্ধন পণ্ড করার জন্য অবস্থান নেয় পুলিশ। ওই সময় কর্তব্যরত এক সহকারী উপপরিদর্শককে (এএসআই) চড় মারেন বরগুনার বামনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইলিয়াস হোসেন। বামনা উপজেলার কলেজ রোডে গতকাল দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এরই মধ্যে ওই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে ওসি মো. ইলিয়াস হোসেনের সমালোচনা করছেন অসংখ্য মানুষ। ওসি শত শত মানুষের সামনে যে এএসআইকে চড় মারেন, তিনিও বামনা থানায় কর্মরত।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে সিফাতের নিজ এলাকা বরগুনার বামনায় মানববন্ধন কর্মসূচি শুরু করেন সহপাঠীরা। বামনার কলেজ রোড সড়কে শান্তিপূর্ণভাবে চলা মানববন্ধনে হঠাৎ পুলিশের একটি দল এসে ব্যানার-ফেস্টুন ছিনিয়ে নেয়। এরপরও শান্তিপূর্ণভাবে চলছিল মানববন্ধন কর্মসূচি।

এর একটু পরই ওসি মো. ইলিয়াস হোসেন মানববন্ধনস্থলে এসেই অংশগ্রহণকারীদের গালমন্দ শুরু করে লাঠিচার্জের নির্দেশ দেন। লাঠিচার্জ শুরুর আগেই ওসি ইলিয়াস উত্তেজিত হয়ে এক এএসআইকে চড় মারেন। প্রকাশ্যে এক পুলিশ সদস্যকে চড় মারার দৃশ্য দেখে মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। এরপর তাঁরা দৌড় দিতে শুরু করেন। এরপরও মানববন্ধনকারীদের উপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ। এ ছাড়াও ওসি ইলিয়াস হোসেন তার অধস্তন পুলিশ সদস্যদের অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন বলেও জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

এ ঘটনার পর ওই এএসআই বলেন, ‘আমি মানসিকভাবে খুব হতাশায় ভুগছি। পারিবারিক এবং সামাজিক দিক দিয়ে চরম লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছি। তাই এ বিষয়ে আমি কথা বলতে চাচ্ছি না।’

এ বিষয়ে বামনা থানার ওসি মো. ইলিয়াস হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাঁর মন্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মফিজুল ইসলাম বলেছেন, ‘ঘটনাটি আমরা জেনেছি। আমরা এ ঘটনার তদন্ত করব। তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ ঘটনার বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।’

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4103972আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 4এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET