২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার, ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৭ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • সকল সংবাদ
  • ব্যবসায়ীকে ফাসাঁতে গিয়ে গনপিটুনির শিকার এএসআই ও দুই সোর্স

ব্যবসায়ীকে ফাসাঁতে গিয়ে গনপিটুনির শিকার এএসআই ও দুই সোর্স

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : জুন ২৩ ২০১৬, ০০:০৯ | 647 বার পঠিত

police_source_nganjনিউজ ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জে এক জুয়েলারি (স্বর্ণ) ব্যবসায়ীকে ফাসাঁতে গিয়ে গনপিটুনির শিকার হয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা ও তার দুই সোর্স। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে শহরের কালীরবাজার স্বর্ণপট্টি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।পরে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

 প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে লিটন নামের এক ব্যক্তি কালীরবাজার স্বর্ণপট্টিস্থ ‘মা তাঁরা স্টোরে’ আসেন একটি স্বর্ণের চেইন বিক্রি করতে। দোকানের মালিক চেইনটি হাতে নিতেই সেখানে উপস্থিত হন নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার এএসআই আশরাফ।

লিটনকে ছিনতাইকারী আখ্যা দিয়ে আটক করেন এবং ওই দোকানের মালিক সুবীর রায় ওরফে পাণ্ডব রায় চোরাই স্বর্ণ বেচাকেনা করেন বলে অভিযোগ তুলে তাকেও গ্রেফতারের চেষ্টা চালান আশরাফ।

এ সময় ঘটনা শোনার পর স্বর্ণপট্টি এলাকার জুয়েলারি দোকানের মালিক ও কর্মচারীরা ক্ষুব্ধ হয়ে এএসআই আশরাফকে ঘেরাও করেন এবং তাকে কালীরবাজার স্বর্ণশ্রমিক ইউনিয়ন অফিসে বন্দি করে রাখে।

এসময় এএসআই আশরাফের কাছে ঘটনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘শহরের ২নং রেইল গেইট একটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে এমন খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছাই। পুলিশের সোর্স ইকবাল জানায়, ছিনতাইকারী কালীরবাজার স্বর্ণ বিক্রি করতে গেছে। এরপর এখানে সোর্সকে নিয়ে এসে হাতেনাতে ছিনতাইকারী লিটনকে আটক করি।’

এএসআই আশরাফের এমন বক্তব্য শুনে ব্যবসায়ীরা ওই সোর্সকে ঘটনাস্থলে আনতে বলে। ইকবাল নামের পুলিশের ওই সোর্স সেখানে এসে জানায়, ছিনতাইয়ের ঘটনা কালীবাজারে হয়েছে। তারপর সে পুলিশে খবর দেয়।

এসময় ব্যবসায়ীরা ছিনতাইকারীকে দেখলেও কোন মহিলার চেইন ছিনতাই হলো তাকে দেখেছে কিনা জানতে চাইলে সোর্স ইকবাল কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি। এছাড়া ছিনতাইয়ের ঘটনাস্থল নিয়ে পুলিশের এএসআই ও সোর্সের দেয়া বক্তব্যে পৃথক হওয়ায় ব্যবসায়ীরা উত্তেজিত হয়ে উঠেন।

এদিকে ছিনতাইকারী লিটন জানায়, ছিনতাইয়ের ব্যপারে সোর্স ইকবাল তার সঙ্গে জড়িত ছিল। এসময় কালীরবাজার স্বর্ণশ্রমিক ইউনিয়ন অফিস থেকে তাদেরকে পুলিশের হাতে তুলে দিতে বাইরে আনা হলে বিক্ষুব্ধ ব্যবসায়ী ও উপস্থিত জনতা এএসআই আশরাফ, ছিনতাইকারী লিটন ও সোর্স ইকবালকে গণধোলাই দেয়।

জুয়েলারি দোকান মালিক ও কর্মচারীরা ক্ষোভ জানিয়ে বলেন, পুলিশের কিছু অসাধু কর্মকর্তা কালীরবাজার স্বর্ণপট্টিতে এমন ঘটনা প্রতিনিয়তই ঘটাচ্ছেন। পুলিশ তাদের সোর্স দিয়ে চোরাইমাল বিক্রি করতে পাঠায়। এরপর দোকানের মালিক পক্ষের কাউকে আটক করে লাখ টাকা দাবি করে।

দোকান মালিক ও কর্মচারীরা বলেন, ‘আমরা এখানে সরকারকে ট্যাক্স দিয়ে ব্যবসা করছি। আর পুলিশ প্রায় সময় আমাদের থেকে বিভিন্ন কায়দায় জোর করে চাঁদা দাবি করে থাকে। এমন সাজানো নাটক পুলিশের প্রতিদিনের কাজ। এর পূর্বেও এমন ঘটনা ঘটেছে।’

এ সময় খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আবদুল মালেক ও ওসি (তদন্ত) আবদুর রাজ্জাক ঘটনাস্থলে আসেন।

ওসি মালেক বলেন, ‘ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করা হবে। এর সঙ্গে যদি পুলিশের কর্মকর্তাও জড়িত থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।’

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বুধবার শহরের কালীরবাজার ও ২নং রেইল গেইট এলাকায় কোনো ছিনতাইয়ের ঘটনাই ঘটেনি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সদর থানা পুলিশের একটি সূত্র জানায়, আটককৃত লিটন ও ইকবাল দুজনই ছিনতাইকারী এবং দুজনই পুলিশের সোর্স এর কাজ করে। এদের দিয়ে কিছু পুলিশ সদস্য নানা অপকর্ম ঘটিয়ে যাচ্ছে।

এ ব্যপারে মডেল থানায় যোগাযোগ করলে জানায়, ঘটনায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। ছিনতাইকারী লিটন ও সোর্স ইকবালকে থানা হাজতে রাখা হয়েছে।

ইকবাল পুলিশের সোর্স হয়ে থাকে তাহলে তাকে হাজতে বন্দি করার কারণ কী- এমন প্রশ্নের জবাব দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন থানা কর্তৃপক্ষ।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4156907আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 13এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET