৮ই আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ২৪শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জিলহজ, ১৪৪১ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • বাগমারার তাহেরপুর হাটে কারেন্ট জালের রমরমা ব্যবসা

বাগমারার তাহেরপুর হাটে কারেন্ট জালের রমরমা ব্যবসা

নাজিম হাসান, রাজশাহী করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : জুলাই ০৩ ২০২০, ২১:১৩ | 654 বার পঠিত

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার তাহেরপুর পৌরসভার হাট-বাজার গুলোতে সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চলতি ভরা বর্ষা মৌসুমে অবৈধ কারেন্ট জাল বিক্রয়ের রমরমা ব্যবসা চলিয়ে যাচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীরা। হাটের দিন হলে দোকান গুলোতে অবৈধ কারেন্ট জাল দোকানে সাজিয়ে রেখে প্রকাশ্যে বিক্রি হলে এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ নেই প্রশাসনের। ফলে এ জাল দিয়ে নিধন করা হচ্ছে দেশি প্রজাতির সব ধরনের জাতীয় মাছের পোনা। ফলে উপজেলার বিভিন্ন নদ-নদীর নানান প্রজাতির মাছের বংশ বিপন্নতার মধ্যে পড়ার আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। উপজেলার তাহেরপুর হাটের কারেন্ট জাল ব্যবসায়ীরা মৎস্য বিভাগের কতিপয় অসৎ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে ম্যানেজ করে হাটবারে অবৈধ কারেন্ট জাল অবাধ বাণিজ্য গড়ে তুলেছে। অসাধু ব্যবসায়ীরা অবৈধ এ কারেন্ট জাল আশে-পাশের উপজেলাসহ কয়েকটি জেলায় পাইকারি এবং খৃচরা বিক্রয় করে থাকেন। এই জাল ব্যবহার শুধু নদী খালে সীমাবদ্ধ নয়, বিল-ঝিলেও ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে এ জাল দিয়ে নিধন করা হচ্ছে দেশি প্রজাতির ছোট-বড় সব ধরনের জাতীয় মাছের পোনা। এমনকি মাগুড়,শিং,কই,পুঁটি,মোয়া,চাঁন্দা ডিমওয়ালা মাছ পর্যন্ত এই জালের ফাঁদে আটকা পড়ছে। আর এসব প্রজাতির মাছ এখন প্রকাশ্যে বিভিন্ন স্থানের মাছের আড়ৎ গুলোতে বিক্রি হচ্ছে। অথচ বাগমারা উপজেলা মৎস্য অফিস থাকা স্বত্ত্বেও তারা রহস্যজনক কারণে নীরব থাকছে। এলাকাবাসি জানান,স্থানীয় একজন ওর্য়াড কাউন্সিলসহ কয়েকজন অসাধু ব্যবসায়ীদের গুদামে লাখ লাখ টাকার কারেন্ট জাল মজুদ রয়েছে। তারা তাহেরপুর বড় মসজিদের উত্তরে শুক্রবার ও সোমবার হাটবার দোকান সাজিয়ে প্রকাশ্যে খুচরাও পাইকারি সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দের্দাচ্ছে বিক্রি করছেন এ অবৈধ কারেন্ট জাল। আর এ অবৈধ কারেন্ট জাল উপজেলার বিভিন্ন যায়গা থেকে আসা জেলে ও মৎস্য শিকারীরা কিনে নিয়ে গিয়ে নিজ নিজ এলাকার নদ-নদী বিলে খালে দেশী প্রজাতির মা মাছ ও পোনা মাছ নিধন করা হচ্ছে। এতে করে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে দেশীয় মাছ। তবে অভিজ্ঞ মহল মনে করছেন এখনি অবৈধ কারেন্ট জাল ব্যবসায়িদের বিরুদ্ধে সরকারি ভাবে ব্যবস্থা না নেওয়া হলে তারা আগামীতে আরো বেপোয়ারা হয়ে উঠবেন।#

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4005589আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 5এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET