২৯শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, ১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-

ফ্রান্সে উদযাপনে ট্রাক হামলা, নিহত কমপক্ষে ৮৪

Khorshed Alam Chowdhury

আপডেট টাইম : জুলাই ১৫ ২০১৬, ১৬:৫৯ | 643 বার পঠিত

22651_r-1নয়া আলো ডেস্ক- ফ্রান্সের নিস শহরে এক উৎসবে জমায়েত জনতার ওপর দিয়ে ট্রাক চালিয়ে দেয়ার ঘটনায় নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ৮৪ জন। আহত হয়েছেন আরও অনেকে। বাস্তিল দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আতশবাজি দেখার জন্য ওই শহরে জড়ো হয়েছিলেন হাজারো মানুষ। পুলিশ ওই ট্রাকচালককে গুলি করে হত্যা করে ট্রাক থামায়। তবে পুলিশ গুলি চালানোর আগেই ট্রাকচালক গুলি ছুঁড়েছিল বলে জানা গেছে। এখনও পর্যন্ত এই হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনো সংগঠন। ফরাসি কর্তৃপক্ষ এই হামলাকে সন্ত্রাসী হামলা বলে অভিহিত করেছে। এই ঘটনার পর ফ্রান্সের জরুরি অবস্থার মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদে। এই হামলার নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্বনেতারা। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স, বার্তা সংস্থা এপি ও বিবিসি।
খবরে বলা হয়, বৃহস্পতিবার রাতে বাস্তিল দিবস উদযাপন করতে ফ্রান্সের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহরে নিসের বিখ্যাত চত্বর প্রমেনেদে দেস অঁলেতে জমায়েত হয়েছিলেন হাজারও মানুষ। ওই চত্বরে আয়োজন করা হয় আতশবাজির। স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১০টার (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটা) কিছু সময় পর শেষ হয় আতশবাজি। আর তখনই ওই ‘সন্ত্রাসী’ ট্রাক ঢুকে পড়ে প্রমেনেদে চত্বরে। ফ্রেঞ্চ কর্তৃপক্ষ জানায়, ২৫ টন ওজনের ওই ট্রাকটি জনাকীর্ণ ওই চত্বরে মানুষের ওপর দিয়ে প্রায় ২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে। আর তাতে ট্রাকের আঘাতে নিহত হন কমপক্ষে ৮৪ জন। এর মধ্যে রয়েছেন কয়েকজন নারী ও শিশু। নিসের মেয়র ক্রিশ্চিয়ান এসস্ত্রসি জানিয়েছেন, হামলায় নিহত শিশুর সংখ্যা ১০ জন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও শতাধিক মানুষ। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্ড কাজেনিউভ জানিয়েছেন, আহতদের মধ্যে কমপক্ষে ১৮ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। স্থানীয় নিস-ম্যাটিন পত্রিকা জানিয়েছে, ওই ঘটনার পর এখন পর্যন্ত নিসের লেনভ্যাল হাসপাতালে ৫৪টি শিশু ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে নিহত শিশুরাও রয়েছে বলে জানা গেছে। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওই ট্রাকচালককে গুলি করে হত্যা করে থামানো হয় ট্রাকটি। তবে পুলিশ গুলি করার আগেই ট্রাক চালক গুলি ছুঁড়তে শুরু করে পুলিশকে লক্ষ্য করে। স্থানীয় সরকারর একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ওই ট্রাকের মধ্যে অস্ত্র ও গ্রেনেড পাওয়া গেছে। ফ্রেঞ্চ পুলিশ এখনও ওই ট্রাকচালকের পরিচয় উদ্ধার করতে পারেনি। দেশটির সন্ত্রাসবিরোধী তদন্তকারীরা তার পরিচয় উদ্ধারে কাজ করছেন। তবে স্থানীয় পত্রিকা নিস-ম্যাটিন একটি সূত্রকে উল্লেখ করে জানিয়েছে, ৩১ বছর বয়সী ওই ট্রাকচালক ছিলেন তিউনিসিয়া বংশোদ্ভূত। পুলিশ এই হামলাকে সন্ত্রাসী হামলা বলেই উল্লেখ করেছে। তবে হামলার পর ৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত এই হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনো সংগঠন বা গোষ্ঠী।
গত বছরের নভেম্বর মাসে ফ্রান্সের প্যারিস শহরে আইএসের হামলার পর আবারও সংঘটিত হলো বড় ধরনের সন্ত্রাসী হামলা। ওই হামলার পর থেকেই ফ্রান্সে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা রয়েছে। ২৬শে জুলাই শেষ হওয়ার কথা এই জরুরি অবস্থার মেয়াদ। কিন্তু এই হামলার পর তা আরও তিন মাসের জন্য বাড়ানোর কথা জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদে। হামলার পর ভোররাতের দিকে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন তিনি। ‘ফ্রান্সকে মারাত্মকভাবে আঘাত করা হয়েছে’ উল্লেখ করে ওঁলাদে বলেন, এ ধরনের হামলার বিরুদ্ধে ‘লড়াই করতে আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী সবকিছু করতে হবে’। তিনি বলেন, ‘এই ঘটনার পর ফ্রান্স দুঃখভারাক্রান্ত।’ দেশের সামরিক ও পুলিশ বাহিনীর সহায়তায় মজুদ সৈন্যদেরও নিয়োজিত করা হবে এবং বিশেষ করে সীমান্ত এলাকায় কঠোর নজরদারি করা হবে বলে জানান তিনি। ওঁলাদে বলেন, ফ্রান্সের জাতীয় দিবসে পরিচালিত এই হামলা ফ্রান্সের স্বাধীনতার ওপর হামলা। আর এই হামলা পরিচালনা করেছে মানুষের অধিকারকে তুচ্ছ গণ্য করা ‘ফ্যানাটিকরা’। এক টুইটে তিনি বলেন, ‘ফ্রান্স এখন কান্না ও শোকের মধ্যে রয়েছে। কিন্তু আমরা শক্তিশালী। এবং আজকের হামলা চালানো ফ্যানাটিকদের চাইতে আমরা আরও শক্তিশালী হয়ে উঠব।’

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4163408আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 6এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET