৩০শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • শিক্ষা
  • নড়াইলের ঐতিহ্যবাহী টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রোদ,বৃষ্টি শীত উপেক্ষা করে ক্লাস করছে গাছতলায় ।

নড়াইলের ঐতিহ্যবাহী টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা রোদ,বৃষ্টি শীত উপেক্ষা করে ক্লাস করছে গাছতলায় ।

হুমায়ন আরাফাত, আশুলিয়া করেসপন্ডেন্ট।

আপডেট টাইম : মে ২৪ ২০১৭, ১৫:৫৭ | 641 বার পঠিত

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি :

নড়াইলের ঐতিহ্যবাহী টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবস্থা খুবই করুণ। শ্রেণি কক্ষ না থাকায় শিক্ষার্থীরা ক্লাস করছে গাছতলায়। প্রায় দুই বছর আগে একতলা বিদ্যালয় ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। তাই রোদ,বৃষ্টি ও শীত উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীদের গাছতলায় ক্লাস করতে হচ্ছে। এতে করে পড়ালেখার স্বাভাবিক পরিবেশ বিঘত হচ্ছে। বিস্তারিত উজ্জ্বল রায়ের রিপোর্টে, জানা যায় ১৯৪২ সালে চারণকবি বিজয় সরকার কর্তৃক এ বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। টাবরা গ্রামে কবির বাবা নবকৃষ্ণের নামে প্রতিষ্ঠিত বিদ্যালয়টি এলাকায় শিক্ষা বিস্তারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা না থাকায় বিদ্যালয়টির নাজুক অবস্থা। ঐতিবাহী টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক তন্ময় বিশ্বাস জানান, ১৯৯৫ সালের জুন মাসে ভবনটিতে ক্লাস শুরুর ১০ বছরের মধ্যে তা জরাজীর্ণ হয়ে পড়ে। ভবনটির ভগ্নদশার কারণে গাছতলায় ক্লাস করাতে হয়। নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী হ্যাপি, চৈতী ও মুক্তা জানায়, শ্রেণিকক্ষ সংকটের কারণে গাদাগাদি করে কখনো টিনের ঘরে, কখনো গাছতলায় ক্লাস করতে হয়। রাস্তা কাঁচা থাকায় বর্ষা মৌসুমে খুব কষ্টকরে স্কুলে আসতে হয়। অনেক সময় বিদ্যালয়ে আসা কঠিন হয়ে পড়ে। বছরের ছয় মাসের বেশি সময় রাস্তা কাদা-পানিতে ডুবে থাকে। মাঝে মধ্যে এমন কাদাপানির রাস্তায় পড়ে পোশাকসহ বই-খাতা নষ্ট হয়ে যায়। স্থানীয়রা জানান, বিদ্যালয়ে অবকাঠামো দুর্বলতা থাকায় এবং যাতায়াত ব্যবস্থা ভালো না হওয়ায় দিন দিন ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা কমে যাচ্ছে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দিলীপ কুমার বিশ্বাস বলেন, ২০১৪ সালের প্রথম দিকে ভবনটি পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়। এরপর সংস্কারের জন্য ওই বছরের ডিসেম্বরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেও কোনো কাজ হয়নি। কর্তৃপক্ষকে জানানো হলেও কোন নতুন ভবন নির্মানেরও কোন উদ্যোগ নেয়া হয়নি। বর্তমানে দু’টি টিনের ঘরে পাঁচটি শ্রেণির পাঠদান কার্যক্রম চলছে। দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অতিকষ্টে সেখানে লেখাপড়া শিখছে। অবসরপ্রাপ্ত জেলা শিক্ষা অফিসার নরেশ চন্দ্র দাস জানান, উপ-মহাদেশ বিখ্যাত কবিয়াল বিজয় সরকারের নামে প্রতিষ্ঠিত টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি রিমোট এরিয়ায় শিক্ষা বিস্তারে অনন্য ভমিকা পালন করছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এর অবকঠমোগত উন্নয়ন হওয়া প্রয়োজন। নড়াইল সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম জানান, ঐতিহ্যবাহী বিদ্যালয়টি দীর্ঘ দিন ধরে এলাকায় জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে আসছে। সুযোগ্য প্রধান শিক্ষক দীলীপ কুমার বিশ্বাসের নেতৃত্বে অত্যন্ত সুন্দরভাবে পাঠকার্যক্রম পরিচালিত হওয়ায় প্রতি বছর পাবলিক পরীক্ষায় খুব ভালো ফলাফল করছে এ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। কিন্তু অবকাঠামোগত কারনে বিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ছে। অচিরেই এখানে ভবন নির্মান প্রয়োজন। জেলা শিক্ষা অফিসার মনিরা সুলতানা জানান, সুন্দর লেখাপড়র জন্য সুন্দর পরিবেশ দরকার কিন্তু এ বিদ্যালয়ের তা নেই। বিশেষ করে শেণি কক্ষ ও সড়কের অবস্থা খুবই নাজুক। শিক্ষা বিস্তারের স্বার্থে দ্রতই এসমস্যার সমাধান হওয়া প্রয়োজন। পুরাতন একজন বিখ্যাত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় বাসগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান, তিনি সভাপতি হওয়ার পরে এ ঐতিহ্যবাহী টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে যোগাযোগ ও আবেদন করেছেন। বিশেষ করে অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য জোর চেষ্টাচালিয়ে যাচ্ছেন। জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ জানান, কবি বিজয় সরকারের বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত ঐতিহ্যবাহী টাবরা নবকৃষ্ণ মাধ্যমিক বিদ্যালয়টির সমস্যা সমাধানে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করা হবে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4213522আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 10এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET