২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৮ই সফর, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • দেশজুড়ে
  • জামাই মেলায়- একটি বাগার মাছের মূল্য ৯৬ হাজার টাকা!

জামাই মেলায়- একটি বাগার মাছের মূল্য ৯৬ হাজার টাকা!

অর্পণ মাহমুদ, জেলা করেসপন্ডেন্ট ,কুষ্টিয়া।

আপডেট টাইম : ফেব্রুয়ারি ১৩ ২০২০, ০০:১৭ | 765 বার পঠিত

বেশ উৎসবের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বগুড়া ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ মেলা ( জামাই মেলা )। এবারের মেলায় ছোটোবড়ো সব ধারনের মাছ আমদানী হলেও সব থেকে বড় ৮০ কেজি ওজনের বাগার মাছ প্রথমে ৭৫ হাজার টাকা দাম উঠলেও শেষমেষ সেই মাছ কেটে প্রতি কেজি ১২ শ টাকায় বিক্রি হয়েছে। বগুড়া অঞ্চলের সব থেকে জনপ্রিয় এবং বড় এ মেলা টি মাছের জন্য বিখ্যাত ।

আগামী কাল এই স্থানে  বউ মেলা অনুষ্ঠিত হবে চলবে দিনভর। পায়াপাশি নানা ধরনের আসবাবপত্র কেনা বেচা চলবে। এই  মেলা কে ঘিরে আশ-পাশের কয়েক উপজেলায় এখনো চলছে উৎসবের আমেজ । মেলা উপলক্ষে এ অঞ্চলের  স্কুল কলেজ গুলাতে চলছে অঘোষিত ছুটি । মেলায় সকাল থেকেই দেশ এবং বিদেশের বাহির থেকে আসা নানা ধরণের বড় বড় মাছ ছিল মেলার দর্শনার্থীদের জন্য প্রধান আকর্ষন । মেলায় ৮০ কেজি ওজনের বাঘার মাছসহ  ২০ থেকে ৩০ কেজি ওজনের চিতল, বোয়াল, রুই, কাতলাসহ দেশী বিদেশী অনেক মাছের আমদানী ঘটেছল।

এ ছাড়া মেলার হরেক রকম বাহারী মিঠাই, বড়ই, কসমেটিকস্, খেলনা, ঘরের আসবাবপত্র ও কাঠ-ষ্টীলের ফার্নিচারের সমারোহ হওয়ায় কেনা বেচাও হয়েছে ভাল বলে জানিয়ে বিক্রেতারা। শেষ পর্যন্ত কেবেচার সঠিক হিসেব না পাওয়া গেলেও প্রতি বছর মেলায় কয়েক কোটি টাকার কেনা বেচা হয় বলে জানান আয়োজকরা।

মেলায়  কেনাবেচার পাশাপাশি বিনোদনের জন্য নাগরদোলা, সার্কাস, বিচিত্রানুষ্ঠান, হুন্ডা খেলা দেখতে দর্শকদের ছিল উপচে পড়া ভীড় ।
জানাযায়, প্রতিবছর সন্ন্যাসী পুজা উপলক্ষে বগুড়া জেলার গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নের তরনীহাট সড়কের পোড়াদহ নামক স্থানে এই মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে প্রায় ৪ শত বছর ধরে । বাংলা মাঘ মাসের শেষ বুধবার এ মেলা শুরু হয় এবং প্রথম দিন মাছের মেলা শেষে পরেন দিন বউ মেলার মধ্যদিয়ে শেষ হয়  । সরকারী ভাবে এর কোন ক্ষবরদারী না থাকলেও স্থানীয় প্রশাসনের আওতায় এর তদারকী করা হয় । আজকের মেলায় লক্ষাধিক নারী পুরুষের সমাগম ঘটেছিল জানিয়েছেন আয়োজকরা ।

সন্ন্যাসী পূজা কমিটির সভাপতি শ্রী নিকুঞ্জ কুমার পাল জানান, প্রায় ৪শ বছর ধরে বগুড়ার মহিষাবান নামক স্থানে এই সন্ন্যাসী পূজা উপলক্ষে এই মেলার প্রচলন হয়ে আসছে। কিন্তু বেশ কয়েক বছর এ মেলা আর হিন্দুদের কোন ভূমিকা- কর্তত্ব নেই। এই দিনে মসলমানেরা মেলা বসিয়ে তারা তারাই আয়োজক হিসেবে সব কিছু করে থাকেন। আমরা শুধু পূজা উৎসব পালন করি।

মেলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে এলাকায় আত্নীয় স্বজনদের ব্যাপক ভীড় পড়ে গিয়েছে । এখনো বইছে এ মেলার আমেজ । বিশেষ করে  অন্যকোন অনুষ্ঠানে মেয়ে জামাইকে দাওয়াত না করলেও এই মেলাতে  জামাই মেয়েকে দাওয়াত করতেই হবে এমন প্রথা অনেক  বছর ধরে এলাকায় চালু রয়েছে । কাল বৃহস্পতিবার দিনভর চলবে বউ মেলা।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4100876আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 2এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET