২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা সফর, ১৪৪২ হিজরি

[gtranslate]

শিরোনামঃ-

করোনাভাইরাস মানুষেরই তৈরি, তাই প্রকৃতি মেনে নেবে না!

নয়া আলো অনলাইন ডেস্ক।

আপডেট টাইম : এপ্রিল ১৭ ২০২০, ১৭:২০ | 708 বার পঠিত

করোনাকে নিয়ে সবার নজর এখন চীনের দিকে। করোনাভাইরাস প্রকৃতি সৃষ্ট না বরং মানবসৃষ্ট জৈব রাসায়নিক বোম বলে অভিযোগ করেছেনে অনেকে। এবার করোনাকে মানবসৃষ্ট ভাইরাস বলে দাবি করছেন এইচ আইভির আবিষ্কারক লুক মন্টাগনিয়ার। তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মানুষেরই তৈরি, তাই প্রকৃতি মেনে নেবে না!

শুরু থেকেই চীন বলে আসছে করোনাভাইরাস প্রকৃতির পরিবর্তনের ফসল। উহানের এক বন্য প্রাণীর বাজার থেকে এই করোনাভাইরাসের উৎপত্তি। তবে এ নিয়ে এখন পর্যন্ত একাধিকবার অভিযোগ উঠেছে। এইচআইভির আবিষ্কারক ড. লুক মন্টাগনিয়ার বলছেন করোনা মানুষের তৈরি ভাইরাস। ভাইরাসটি দুর্ঘটনাবশত ল্যাব থেকে বাইরে এসেছে। এরই মধ্যে চীনা গবেষকরা স্বীকার করেছেন তারা এইচআইভির ভ্যাকসিন তৈরিতে করোনাভাইরাস ব্যবহার করেছে।

করোনার কিভাবে উৎপত্তি হয়েছে এবং এর ছড়িয়ে পড়ার ইতিহাস আমরা এরই মধ্যে জেনেছি তবে এ নিয়ে একটি থিসিস রয়েছে যা পুরো উল্টো কথা বলে। নোবলে বিজয়ী চিকিৎসক বলছেন, উহানের ল্যাবে করোনাভাইরাস তৈরি হয়েছে এবং সেই সাথে তারা এইডস রোগের ভ্যাকসিন তৈরিতে কাজ করছিল। ল্যাবটি মূলত করোনাভাইরাস তৈরির জন্য প্রচলিত বলছে লুক মন্টাগনিয়ার।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, আমার সহকর্মীদের সাথে আলোচনা করে আরএনএ ভাইরাসটির জিনোমার বিবরণে যত্ন সহকারে বিশ্লেষণ করেছি। ভারতীয় গবেষকরা এরই মধ্যে বিশ্লেষণের ফলাফল সামনে আনার চেষ্টা করেছেন যেখানে দেখা গেছে এইচআইভি ভাইরাসের জিনোম এইচআইভি ভাইরাসের পর্যায় ধারণ করেছে। কিন্তু চাপের মুখে তারা অনুসন্ধানের ফল সামনে আনতে ব্যর্থ হয়। তিনি বলছেন করোনাভাইরাস এইচআইভি আক্রান্ত এমন কোন মানুষের শরীর থেকে এসেছে।

Please follow and like us:

পাঠক গনন যন্ত্র

  • 4093134আজকের পাঠক সংখ্যা::
  • 6এখন আমাদের সাথে আছেন::

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী, সম্পাদক- আশরাফুল ইসলাম জয়,  উপদেষ্টা সম্পাদক- নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদক - ০১৫২১৩৬৯৭২৭,০১৮৮০৯২০৭১৩

Email-dailynayaalo@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET